দৈনিক কবিতা গুচ্ছ




পোস্ট বার দেখা হয়েছে
                                                   অঙ্কন : লাবনী সরকার

  অস্তিত্বের লড়াই 
              তনুশ্রী মণ্ডল 
                            
আগুন ! আগুন ! করে শুধুই আর্তনাদ 
দিকে দিকে উঠেছে যেন কলরব !
ব্যর্থতার করাল গ্রাসের সম্মুখীন অস্তিত্ব ;
ভয়ার্ত মেদিনীও আজ আত্মরক্ষার 
তাগিদে  প্রাণপণ চেষ্টার চালায় সংগ্রাম ৷

মহাসমরে যেন শুধুই অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই !
বিভেদের প্রাচীর নীল দিগন্তে দিয়েছে পাড়ি,
চতুর্দিক যেন ঘুট্‌ঘুটে অন্ধকার ;
কোনোমতে হাতড়ে পথ চলা ,
চেনা পথ অথচ আজ বড়ই লাগে অচেনা !
বুকের ভিতরটা তৃষ্ণায় বড়ই কাতর ,
তবুও মরীচিকা পারে না ভোলাতে আর ৷

কঠিনতম বাস্তবের সম্মুখসংঘাত !
নিষ্পেষিত হৃদয় অন্তর্কলহে সদা জাগরিত ;
অতন্দ্রা প্রহরী বেশে করছে অনুধাবন ---
বেদনার পাহাড় ক্রমশ জমেই চলেছে ,
তবুও আক্ষেপের লেশ বিন্দুমাত্রও নেই ৷

বহুযুগ থেকে অস্তিত্বের চলছে অগ্নিপরীক্ষা 
সে কি বন্দী বদ্ধ চিলেকোঠা ? 
ভাবনার অতীত হতাশার আঁচলে ঢাকা---    
 যুগের সাথে তাল মিলাতে গিয়ে দিকভ্রষ্ঠ !
কখনো কৈফিয়ত্‌ জারি করেনি সে ও ,
পরিস্থিতির দাবানলে জ্বলছে বর্তমান ;
তবুও ভবিষ্যৎ জানায় সাদরে আমন্ত্রণ ৷

===

নাহল কিংবা মৌমাছি
অনিকেত মহাপাত্র

রজমে রজমে ছারখার
সিক্ত বাসনা, গুঁড়ি গুঁড়ি
দেহে মৌচাক, ক্লেদ ঢেলে
নহলেরা ওড়ে আর ফেরে
জনপদকল্যাণী লাস্য মধু
মাধ্বী গলে গলে
হৃদয় জরা প্রান্তরে
রজমে রজমে জেরবার দেহ
বিষ টোনা করে
চোখ হারাবার, সদ্য ঢালাই
সিঁড়ি ভাঙার মতো খেদ
নিক্ষেপ করো, তীব্র
গর্তে আমার স্বপ্ন পোঁতা
মন হারাবার দাদ নির্মিত
শয়তানি সৌধ উচ্চ
রজম আমার ভীষণ প্রিয় !

===

                                                              ছবি সংগৃহীত 


শেষ অবহেলা
    তথাব্রত সাহা 

  ওরে এসেছি তোর কাছে , 
           হাজারো ভিড় ঠেলে....
                    শেষ অবহেলার আশায় -
       আশা ছিলো  বনস্পতির উচিয়ে থাকা থাবা ,
    পর্বত চূড়া , ভয়ংকর  কালো আকাশকে  নত করে ,, 

শেষ  শক্তি দিয়ে  বিশ্বকে অঞ্জলি  দেব তোর কাছে ।
           কোথায় তুই আজ , কোথায় তোর প্রাণ ! 
   কোথায়  তোর  ভালোবাসার টান !
        আজ ভাবি , এই পাগলামি কার দোষে !
    কার প্রতিক্ষায় আছি বসে ।
       ভেবেছিলাম তোর প্রাণের কাছে আমার জন্যে একটু আসন আছে ।
     কিন্তু আজ ছুঁড়ে দিলি সুনামির মাঝে ।

অনেক স্বপ্ন ছিলো মনে ,
 দুজনে গাইব গান , করব খেলা আপণ ঘরে ।
পাড়ের ধসে যাওয়া মাটি , 
হৃদয়ের গোমড়ানো ভ্রুন রুদ্ধ আবেগ ,  
সমস্ত অনুভূতি গুলকে করে রাখবো  স্মৃতি । 
কিন্তু , আজ চলে যাওয়ার পালা ....
জানি সময় হারিয়েছি আজ । 
নিঃশব্দে ঝরে পড়া বৃন্ত খসা হলুদ পাতার মতো ।

ওরে  নুঁয়ে পড়ার সময় আসেনি আমার -
কিন্তু তোর চলে যাওয়ার এক একটা মুহুর্ত , 
আমার জীবনে নেমে আসা অন্ধকার ।

ওরে তোর কাছে শেষ চাওয়া আমার -
নাইবা হ'লি মনের চাওয়া পাওয়া 
নাইবা পেলাম তোকে আপণ করে.....
ক্ষতি কি !
যদি এতেই হৃদয় ভরে ।
চেয়েছি তোকে জীবন সাথী  করে -
জীবন সাথী নাই বা হলি
থাকিস আমার চোখের প'রে ।।





 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য