দর্পণ || সাধারণতন্ত্র




পোস্ট বার দেখা হয়েছে

 

আসছি আমরা

  অনিরুদ্ধ দত্ত

             


আরো একটা প্রজাতন্ত্র দিবস-৭৪তম, স্বাধীনতার পরে প্রায় ৭৫ বছর অতিক্রান্ত; চারিদিকে শঙ্খ ধ্বনি, কুচকাওয়াজ, জাতীয় পতাকা উত্তোলন--, মহোৎসবে মেতে উঠেছে ভারতবর্ষ।তাইতো হওয়া উচিত, এতো বছর ধরে আমরা স্বাধীন! হে মহা বীর বীরাঙ্গনারা,স্বাধীন তোমাদের স্বপ্নের ভারতবর্ষ, তোমাদের স্বপ্নের প্রজাতন্ত্র ! পরাধীন দেশে স্বাধীনতা ছিল তোমাদের স্বপ্নে, তোমাদের হৃদয়ে, তোমাদের প্রেমে,তোমাদের চেতনায়,তোমাদের রক্তে,--তোমাদের স্নায়ুতন্ত্রে আলোড়িত হত স্বপ্নের প্রজাতন্ত্র! তাইতো ব্রিটিশদের শত অত্যাচার সহ্য করেও স্বাধীন দেশ মাকে, স্বপ্নের প্রজাতন্ত্রকে দেখবে বলে তোমরা হাসিমুখে মৃত্যুবরণ করেছো। হে মৃত্যুঞ্জয়ী বীরেরা,তোমরা কোথায়? তোমরা কি এখন দেখতে পাও তোমাদের স্বপ্নের দেশকে? স্বপ্নের প্রজাতন্ত্রকে? তোমরা কি শুনতে পাও?--এই  শঙ্খ ধ্বনি,জয় হিন্দ,বন্দেমাতরম--,তোমরা কি খুঁজে পাও তোমাদের সেই স্বপ্নের আকাঙ্ক্ষিত প্রজাতন্ত্রকে? তোমরা কি চেয়েছিলে এই স্বাধীনতা? তোমরা কি চেয়েছিলে এই প্রজাতন্ত্র যা বহন করে নিয়ে এসেছে  ভোট নামক এই বিশাল মহাযজ্ঞকে, যা প্রতি মুহূর্তে কলুষিত হচ্ছে; থাক, আর নাইবা বললাম;স্বাধীনতার জন্য যেখানে তোমরা সর্বস্ব ত্যাগ করেছিলে, ত্যাগ করেছিলে তোমাদের প্রেম, তোমাদের স্বাচ্ছন্দ্য জীবন যাপন,ধর্মের ভেদাভেদ ভুলে,সর্বস্ব  ভুলে তোমরা প্রেম করেছিলে শুধু স্বাধীনতার সঙ্গে! আর দেখো দেখো,আজ আমরা ব্রিটিশদের থেকে মুক্ত,আমরা স্বাধীন!-- কবি তো বলেছিলেন, 'আমরা সবাই রাজা, আমাদেরই রাজার রাজত্বে'--কবির কথার মর্মার্থ কি তোমরা বুঝতে পেরেছো? বোধহয় একটু বেশি‌ই বুঝতে পেরেছো!আমরা স্বাধীনভাবে মেতে উঠেছি টাকার খেলায়, আমরা স্বাধীনভাবে নিষ্পেষণ,নিপীড়ন করছি অসহায় মানুষদের, ধর্ষণ করছি অসহায় নারীদের,আরে ভাই, আমরা স্বাধীন হয়েছি না! শুধুমাত্র ভোট ব্যাংকের দিকে তাকিয়ে, ধর্মের ভিত্তিতে ধ্বনিত হচ্ছে কত রকম মন্ত্র!ভোটের স্ট্যাটিস্টিকসের খেলায় আমরা তো জড়িয়ে নিয়েছি ধর্মকে; দাও দাও,আরো রস দাও--,ভোটের বিশাল মহাযজ্ঞে যদি জয়ী হতে চাও তো আরো রস দাও!খেলো খেলো,ধর্মের ভেদাভেদের খেলা গড়ে তোলো; হে মৃত্যুঞ্জয় বীরেরা, তোমরা কি কাঁদছো? তোমরা কি অন্ধ বধির হয়ে গেছো?তা তো হওয়ার কথা নয়---;জ্যোতির্ময় গণিতজ্ঞ ঈশ্বর-আল্লার‌ই তো সৃষ্ট এই মৃত্যুঞ্জয়ী মহাবীর-বীরাঙ্গনারা,স্বাধীনতার আন্দোলনেই তো তোমরা অনুভব করেছিলে যে তোমাদের দেশ ভাইয়েরা শৃঙ্খলাপরায়ন নয়; তাহলে কেন চলে গেলে? ব্রিটিশদের হাত থেকে মুক্ত হওয়ার এত বছর পরেও কেন ফিরে এলে না তোমরা? তোমাদের স্বপ্নের প্রজাতন্ত্রকে দেখবে বলে;---- হে ঈশ্বর-আল্লা ,পাঠাও না ওই জ্যোতির্ময় পুরুষদের,পাঠাও ওই বীরাঙ্গনাদের,--- হে মহাবীর বীরাঙ্গনারা,তোমরা কি দেখতে চাও না তোমাদের স্বপ্নের আকাঙ্খিত ভারতবর্ষকে, স্বপ্নের প্রজাতন্ত্রকে?তাহলে কেন এখনো শুনতে পাচ্ছি না,-- মহাশূন্য থেকে ভেসে আসা বাণী--- 'আসছি আমরা, আমরা আসছি,--নিয়ে আসছি তোমাদের চেতনায় প্রজাতন্ত্র।'

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ